spot_img
শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
24 C
Bangladesh
শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
spot_img
আরও
    DinBartaঅপরাধকুষ্টিয়ার কুমারখালী পেনশনের টাকা ছিনতাই, বৃদ্ধের রহস্যজনক মৃত্যু
    spot_imgspot_img

    কুষ্টিয়ার কুমারখালী পেনশনের টাকা ছিনতাই, বৃদ্ধের রহস্যজনক মৃত্যু

    কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পেনশনের টাকা তুলতে এসে গণেশ বাঁশফোড় (৮০) নামের এক বৃদ্ধের রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। সোমবার (২৫ জুলাই) কুমারখালী সোনালী ব্যাংক লিমিটেড উপজেলা শাখায় এঘটনা ঘটে।

    নিহত ব্যক্তি পৌরসভার শেরকান্দির সুইপার পট্টি এলাকার বাসিন্দা। তিনি একজন অবসর প্রাপ্ত পরিছন্নতা কর্মী ছিলেন। পরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে সুরতহাল করেন এবং কোন অভিযোগ না থাকায় মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

    পুলিশ, ব্যাংক, পরিবার ও সিসিটিভি ফ্রুটেজ সুত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার সকাল ১০ টা ১০ মিনিটের দিকে উপজেলার সোনালী ব্যাংক লিমিটেডে পেনশনের টাকা তুলতে গিয়েছিল অবসর প্রাপ্ত পরিছন্নতা কর্মী গণেশ বাঁশফোড়। এ সময় একটি চক্র তার পিছু নেয়।

    আরও পড়ুনঃ বৈজয়ন্ত বিশ্বাস এর প্রচেষ্টায় সাপের প্রতিষেধক প্রদান প্রশিক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ

    এরপর ১০ টা ২৬ মিনিটের দিকে ২৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকের গলি দিয়ে বের হচ্ছিলেন। এসময় চক্রদলের একজন তার কাছে যায় এবং পিঠে কিছু একটা লাগিয়ে দেয়। এরপর তিনি ব্যাংকের প্রধান প্রবেশ পথের সামনে থাকা টিউবওয়েলের কাছে যান। তার পিছেপিছে প্রতারক চক্রের একজন সেখানে যান।

    এরপর প্রায় ৫ মিনিট পর গণেশ খালিগাঁয়ে টিউবওয়েলের কাছ থেকে বের হয়ে পুনরায় ব্যাংকের দিকে ফিরে যান আর প্রতারক চক্রের ৬ জনকে দ্রুত চলে যায়।

    আরও জানা গেছে, সকাল ১০ টা ৩৮ মিনিটের দিকে গণেশ ব্যাংকের ব্যবস্থাপকের কাছে যান এবং তার ২৫ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের কথা বলতে বলতে অসুস্থ হয়ে ফ্লোরে পড়ে যান। এরপর ব্যাংকের কর্মকর্তা/ কর্মচারীরা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দ্বিতীয় তলায় পাঠায় তাঁকে। দ্বিতীয় তলার সিঁড়িত তিনি মারা যান।

    আরও পড়ুনঃ খোলা জায়গায় মলত্যাগে শীর্ষে রংপুর বিভাগ

    এ বিষয়ে নিহতের বড় ছেলে তুলশী বাঁশফোড় বলেন, ‘বাবা ব্যাংক থেকে পেশনের টাকা তুলে ফেরাতে ব্যাংকের নিচে প্রতারক চক্রের শিকার হন। প্রতারক চক্র তার ২৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। টাকার শোকে হয়তো স্ট্রোক করে মারা গেছেন।

    উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারি সার্জন ডা. মো. মশিউল আরেফিন বলেন, ‘ব্যাংক থেকে ঘটনাটি ঘটেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে দ্বিতীয় তলায় উঠতে সিঁড়িতে তিনি মারা যান। ময়নাতদন্ত করা হলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে।’

    সোনালী ব্যাংক লিমিটেড উপজেলা শাখার জৈষ্ঠ্য ব্যবস্থাপক প্রসাদ বিশ্বাস বলেন, ‘টাকা ছিনতাইয়ের পর বিষয়টি আমাকে জানাতে এসেছিল। এ কথা বলতে বলতেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং কিছু সময় পরে মারা যান।’

    কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘টাকা ছিনতাইয়ের কারণে স্টোক করে মারা যেতে পারেন। তবে কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

    spot_imgspot_img

    ফলো করুন-

    সম্পর্কিত বার্তা

    জনপ্রিয় বার্তা

    সর্বশেষ বার্তা